My Write-up

হয়তবা প্রেম!!

তোকে ভালবাসি কিনা জানি নে

মাঝি রে

পরানের ভেতর থাইক্যা সে বাহির হইয়া আসে

বিজয়া


সড়ক দুর্ঘটনা দায় কার?

বেশ কিছুদিন থেকে বাংলাদেশ এক অস্থির সময় পার করছে। সড়ক দূর্ঘটনার জের ধরে স্কুলের বাচ্চা বাচ্চা ছেলে মেয়েরা সরকার বা বিরোধীদল এমনকি আমাদের মত জেগে জেগে ঘুমিয়ে থাকা সবার চোখে আঙুল দিয়ে আইনের সুশাষন শিখিয়ে দিচ্ছে। আমার মত এক নগন্য মানুষও মনে একটা জোর পাচ্ছে। এবার হবে, হতেই হবে। অনেকটা নির্লজ্জের মত বাচ্চাদের দেখানো পথে চলতে আর ভয় করবেনা আমার। 

চক্রজীবন

রেস্তোরার ওই বদ্ধ কেবিনে
চার চোখের মিলন স্বপ্ন রঙিনে
ছোট্টবেলা হারিয়ে যায় পড়ার টেবিলে
তোমাকে কে খুঁজে ফেরে নতুন মিছিলে
চলে গেছে ট্রেন, প্ল্যাটফরম নিয়ে থাকা
তুমি কেন হলে এত অচেনা ঢাকা।।

বাংলাদেশ

বাউলসুরে ভেসে আসে

জননেত্রী

বুবু তোমার হাতে

বিবাহবার্ষিকী

সেদিনের সেই স্বর্ণালী সন্ধ্যায়
বসন্তের মাতাল রজনীগন্ধায়
শপথ নিলাম পথ চলব দুজনে 
বাঁধা পড়িলাম সেই ২রা ফাল্গুনে 
পাঁচ বছর তো এমন বেশী কিছু নয়
সাদা কালো রং বেরঙে কেটে গেল সময়

উৎসর্গ

১)
উনিশ নম্বর চৌধুরী লে

যতীন বাবুর ছায়া

১) খুব ভোরবেলার দিকে যতীন সাহেব টেবিলে কাজ করতে করতে টুপ করে মরে গেল। এই মৃত্যুটি অকাল মৃত্যু না হলেও নামকরা ব্যাক্তিবর্গের মৃত্যুতে অকাল প্রয়াণ শব্দটি লিখবার সময় কলমের ডগায় চলে আসে। একটু যেন কোথায় হায় হায় ভাবটা বিরাজ করে ‘অকাল প্রয়াণ’শব্দটির মাঝে। এমনিতে নিরোগ শরীরের অধিকারী হলেও যতীন সাহেবের বয়সকাল যথেষ্ঠই হয়েছিল। বলতে গেলে মরবার বয়স তাঁর ক্রমেই পার হয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু ওই যে বলছিলাম তারকা শ্রেণীর নামকরা ব্য

Pages